শিল্প ও সাহিত্য

নতুন শিক্ষাক্রমঃ সমালোচনার আগে দেখে নিন, গঠনমূলক পরামর্শ দিন

লেখক, বিবি হাওয়া স্নেহা::

এই বয়সে আমরা হেলথ ক্যাম্প কি জিনিস জানতাম না। বড়জোর শারীরিক শিক্ষা বই থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা মুখস্থ করেছি। থার্মোমিটার দিয়ে জ্বর মাপা শিখেছি বুড়ো হয়ে। স্টেথোস্কোপের ব্যবহার তো এখনো জানিনা!

আর ওদের মানে নতুন পাঠ্যক্রমের বাচ্চাদের দেখেন!হেলথ ক্যাম্পের আয়োজন করে এসব তো শিখছেই, পাশাপাশি ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য পরিচর্যা থেকে শুরু করে কিভাবে বাড়িতে বয়স্ক, শিশু বা প্রতিবন্ধীদের সেবা করবে তাও হাতে-কলমে শিখছে!

একই বিষয়ে মূল্যায়ন কয়েকদিনে হচ্ছে।

 

১ম দিন শিখেছে– এলাকার স্বাস্থ্যবিষয়ক সমস্যা নির্ণয়, সমাধানের উপায় নির্বাচন, বাস্তবায়ন এবং অংশীজনের মতামত গ্রহণ।

২য় দিন শিখেছে– নিজের পছন্দ, আগ্রহ ও যোগ্যতার ভিত্তিতে পেশা নির্বাচনের বিভিন্ন মেয়াদী পরিকল্পনা। ২০ বছর পর উক্ত পেশায় প্রযুক্তির প্রভাব কেমন হবে ইত্যাদি।

৩য় দিন শিখেছে– হেলথ ক্যাম্পের আয়োজন, অতিথি আমন্ত্রণ, নিজের স্বাস্থ্য পরিচর্যার পাশাপাশি পরিবারের শিশু,বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের সহায়তা করা, জ্বর পরিমাপ,ডায়াবেটিস ও প্রেশার মাপা ইত্যাদি।

এছাড়াও ওরা নিজেরদের আয়-ব্যয়-সঞ্চয়ের আর্থিক ডায়েরি করেছে, হেলথ ক্যাম্পের বাজেট নির্ণয় করেছে, সমগ্র কাজের সবল-দুর্বল দিক বা চ্যালেঞ্জ নিয়ে প্রতিবেদনে লিখেছে

অথচ আমরা শিক্ষাজীবন শেষ করেও অনেকে নিজেদের আগ্রহ বা যোগ্যতা চিহ্নিত করতে পারিনা, পরিকল্পনা দূরে থাক!

তবুও কেউ কেউ বলবে– আমরা সারাবছর রান্না শেখাই! এই কারিকুলামে নাকি কেউ ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার হবে না।

কেউ কি এটা ভেবেছেন– টপার কয়েকজন হয়ত ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার হবে। বাকিরা কোথায় যাবে? কি করে জীবিকা নির্বাহ করবে? তাছাড়া পড়তে হয় পরিবারের পছন্দের বিষয়ে। ফলে নিজের আগ্রহের বিষয়ে চর্চাও থাকেনা যে তা দিয়ে কিছু করবে!

তাই বলছি সমালোচনা করার আগে একটু দেখে নিন। প্রয়োজনে গঠনমূলক পরামর্শ দিন।
শত সমস্যার এই দেশেই আমাদের সন্তানেরা বেড়ে উঠছে, বেঁচে থাকবে। ওরা যেনো আমাদের মত সার্টিফিকেটধারী বেকারের লম্বা লাইনে না দাঁড়ায়!!

(চলবে…)

বিবি হাওয়া স্নেহাঃ শিক্ষক,  লেখক ও সংগঠক।

Please follow and like us:

Related Articles

Check Also
Close
Back to top button