২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Table of Contents

পাকাঘরে থাকবো কোনো দিন স্বপ্নেও ভাবিনাই

প্রদীপ শীল, বিহঙ্গ টিভি:: ‘আমাদের কোন জায়গা নেই। তিন সন্তানকে নিয়ে অনেক কষ্টে নিম্নমানের ভাড়াবাসায় থাকতাম। পাকাঘরে থাকবো কোনো দিন স্বপ্নেও ভাবিনাই। তিন সন্তানকে নিয়ে মাথাগোঁজার ঠাঁই পেয়েছি, এটাই জীবনের সেরাপ্রাপ্তি।’

এভাবে নিজের অভিমত ব্যক্ত করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বাংলাদেশ পুলিশ রাউজান থানার পক্ষ থেকে নির্মিত পাকাঘর পাওয়া নাজমা আকতার।

জানা যায়, রাউজান পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের ছত্রপাড়ার মেয়ে নাজমার সঙ্গে পৌরসভার ৪নম্বর ওয়ার্ডের জানালীহাট এলাকার দিনমজুর আকতার হোসেন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ভূমিহীন দম্পতি তিন সন্তানের জননী নাজমা ও দিন মজুর আকতার দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করতেন ভাড়া বাসায়। আর্থিক টানা টানির সংসারে প্রতি মাসের বাসা ভাড়ার টাকা দিতে হিমসিম খেত।

বাংলাদেশ পুলিশের আইজির সার্বিক সহযোগিতায় ও রাউজান থানার ব্যাস্থাপনায় গৃহহীন তালিকায় উঠে আসে রিকশা চালক আকতার হোসেন ও নাজমা দম্পতির নাম।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন তাঁদের জন্য রাউজান সদর ইউনিয়নের কেউটিয়া গ্রামে ক্রয় করেন দুই শতক জমি। সেই জমিতে দুইটি বেড রুম, একটি বারান্দা, রান্নাঘরসহ নির্মাণ করা হয় আধাপাকা বাড়ি। বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানসহ বৈদ্যুতিক পাখা, বাতি লাগানো হয়। ঘরের পাশে স্বাস্থ্য সম্মত শৌচাগার স্থাপন করা হয়।

এছাড়া বসানো হয়েছে একটি সুপেয় পানির টিউবয়েল। গত ১০ এপ্রিল সারা দেশে পুলিশ বাহীনির সহায়তায় নির্মিত বাড়ীগুলো উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গতকাল ১১ এপ্রিল সোমবার রাউজানে রিকশা চালক আকতার হোসেন ও নাজমা দম্পতির জন্য নির্মিত প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বাড়ির দলিল ও ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন নাজমা আকতারের হাতে এসব দলিলপত্র ও চাবি হস্তান্তর করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান থানার সেকেন্ড অফিসার অজয় দেব শীল সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল হারুন জানান, বুয়েটের বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীদের সমন্বয়নে মজবুত ও টেকসই বাড়ি নির্মাণ করে নাজমা দম্পতিকে দেওয়া হয়েছে। দৃষ্টিনন্দন বাড়ি পেয়ে খুশিতে আত্মহারা নাজমা আকতার বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী ও রাউজান থানা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

নামাজ পড়ে প্রতিদিন মহান আল্লাহ তা’লার কাছে প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করা ছাড়া আর কিছু করার নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার মতো মানুষেরও খবর নিয়েছেন, সাধারণ নাগরীক তা আমার জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts