২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Table of Contents

চুয়েটে বঙ্গবন্ধু পরিষদের শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:: চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর বঙ্গবন্ধু পরিষদের আয়োজনে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার “এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার” অর্জন এবং “ক্রাউন জুয়েল” অভিধায় ভূষিত হওয়া উপলক্ষ্যে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

“মানবিক নেতৃত্ব ও অগ্রযাত্রার অগ্রদূত” শিরোনামে ২৯শে সেপ্টেম্বর (বুধবার),  রাত ৯.০০ ঘটিকায় উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়েট বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।

চুয়েট বঙ্গবন্ধু পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহম্মদের সভাপতিত্বে এবং পরিষদের সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামরুল হাছানের সঞ্চালনায় উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফিন, অধ্যাপক ড. উজ্জ্বল কুমার দেব, এটিএম শাহজাহান ও প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম।

উক্ত ওয়েবিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধুপ্রেমী সম্মানিত শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মতোই একজন ভিশনারি লিডার। উনার গতিশীল নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে। পঁচাত্তরপরবর্তী সময়ে যারা দেশকে পিছিয়ে দিতে চেয়েছিল বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে সেই দেশেই এখন মহাকাশ যাত্রা, নিজস্ব স্যাটেলাইট, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণ, মেট্রোরেলের মতো মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। যা মাত্র এক দশক আগেও আমাদের কাছে স্বপ্নের মতো মনে হতো। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী ইশতেহার ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্বপ্ন নয়, বাস্তবতা। সেই ডিজিটাল টেকনোলজির মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীও এখন উপকৃত হচ্ছে।” চুয়েট ভিসি আরও বলেন, “বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবেও এগিয়ে যাচ্ছে৷ যার প্রমাণ আমরা এখন উন্নয়নশীল দেশের কাতারে। শেখ হাসিনার নেতৃত্ব এখন বিশ্ব দরবারেও স্বীকৃত। জাতিসংঘ কর্তৃক এসডিজি অগ্রগতি পুরষ্কার অর্জন এবং ক্রাউন জুয়েল অভিধায় ভূষিত হওয়ায় চুয়েট পরিবারের পক্ষ থেকে আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Related Posts