সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৯:২৬ অপরাহ্ন

নোটিশ :
**জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ ॥ সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩ ॥ নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ সেবা-১০৯ ॥ দুদক-১০৬ ॥ **পুলিশ সুপার (চট্টগ্রাম জেলা)- ০১৩২০-১০৭৪০০ ॥ চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭- ০১৭৭৭-৭১০৭০০ ॥ রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা-০১৭৩৩-১৪১৮৪৩  ॥ রাউজান থানার ওসি-০১৩২০-১০৭৭০৪ ॥ সহকারী পুলিশ সুপার (রাঙ্গুনিয়া সার্কেল)-০১৩২০-১০৭৪৭১ ॥ রাউজান ফায়ার সার্ভিস-০১৮৮৬-৩৯৯২৭৫ ॥ রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিস-০১৮৬০-৫৬৫৬৭৫ ॥ হাটহাজারি ফায়ার সার্ভিস-০১৭৩০-০০২৪২৭ ॥ কালুরঘাট ফায়ার সার্ভিস-০১৭৩০-০০২৪৩৬ ॥ রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা-০১৭৫১-৮৯৮৮২২ ॥ চট্টগ্রাম পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২-০১৭৬৯-৪০০০১৯ ॥ **মাদক-যৌতুক-ইভটিজিং ও বাল্যবিবাহ’কে না বুলন **গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান **আপনার ছেলে-মেয়েকে স্কুল ও মাদ্রাসায় পাঠান **পাখি শিকার নিজে করবেন না অন্যকে করতে দিবেন না **মাদক মুক্ত সোনার বাংলা গড়ি **ইসলাম ধর্মের সবাই নামাজ পড়ি **হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান নিজ ধর্ম পালন করুন **খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকুন। **বিহঙ্গ টিভিতে যোগাযোগর ঠিকানা: ফোন: ০১৫৫৯-৬৩৩০৮০, ই-মেইল: newsbihongotv.com, (সবার জন্য বিহঙ্গ)
সংবাদ শিরোনাম:
ধর্মপাশায় ডোবার পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু সিরাজগঞ্জে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সাফজয়ী আঁখি খাতুনকে সংবর্ধনা প্রদান বাউফলে গভীর রাতে বসত ঘড়ে আগুন লাগিয়ে হত্যার চেষ্টা, থানায় অভিযোগ! চোরাবালিতে আটকা পড়ে রাউজানের যুবকের মৃত্যু জেলা পরিষদের নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে-নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা হাটহাজারীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জন্মদিন পালিত দ্রব্যমুল্যের উর্দ্বগতিতে সিরাজগঞ্জে টুইষ্টিং শ্রমিকদের মজুরী বৃদ্ধির দাবিতে মানববন্ধন শাহজাদপুরে সাফ জয়ী ফুটবলার আঁখিকে সংবর্ধনা প্রদান সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ডা: রফিক চৌধুরী জুনিয়র হাই স্কুল পরিদর্শন করলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা

হালদার মা মাছ কাঁদছে বৃষ্টি’র জন্য!

“হালদায় ডিম ছাড়ার অপেক্ষায়! প্রহর গুণছেন পোনা সংগ্রহকারীরা”

সুমন পল্লব, হাটহাজারী:: দক্ষিন এশিয়ার একমাত্র মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে ডিম ছাড়ার অপেক্ষায় মা মাছ। এদিকে মা মাছ ডিম ছাড়বে এ অপেক্ষায় প্রহর গুণছেন হালদা পাড়ের পোনা সংগ্রহকারীরা।হালদা নদীতে মা মাছের
আনাগোনা শুরু হলেও লাগাতার বজ্রসহ বৃষ্টি, শীতল আবহাওয়া ও পাহাড়ি ঢল না থাকায় ডিম ছাড়ছে না।

হালদা নদী দেশে স্বাদু পানির কার্পজাতীয় মাছের প্রধান প্রাকৃতিক প্রজননক্ষেত্র। পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে হালদা নদী চট্টগ্রামের রাউজান, হাটহাজারী ফটিকছড়ি উপজেলার প্রায় ৯৮ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে প্রবাহিত হয়ে মিশেছে কর্ণফুলী নদীতে। তবে ফটিকছড়ি উপজেলায় আংশিক পড়েছে হালদা নদী

প্রতি বছর মা মাছ এপ্রিল থেকে জুন মাস বজ্রসহ ভারীবর্ষণের সময় হালদায় ডিম ছাড়ে । তাই এ সময়টাতে হালদা পাড়ের ব্যস্ততার সীমা নেই। ডিম আহরণের জন্য তারা নানান প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন
ডিম সংগ্রহকারীরা। কেউ নতুন নৌকা তৈরি করেছেন, আবার কেউ নৌকা মেরামতে করেছেন, কেউ কেউ মাটির কুয়া তৈরি করেছেন ডিম থেকে রেণু তৈরির জন্য।

মাছুয়াঘোনা মৎস্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ডিম সংগ্রহকারী শফিউল আলম বলেন, হালদা নদী আমাদের কাছে মায়ের মতো। এ নদীতে প্রতি বছর এপ্রিলের শেষের দিকে এবং মে মাসে মা মাছ ডিম ছাড়ে। এ সময়টা আমাদের জন্য অনেক আনন্দের। আগ্রহ আর উদ্দীপনার শেষ থাকে না কখন মা মাছ ডিম ছাড়বে। নদীকে রক্ষা করতে আমরা সর্বদা সচেষ্ট থাকি। আশাকরি বৃষ্টি হলে এবার আমরা অন্যান্য বছরের তুলনায় বেশি ডিম সংগ্রহ করতে পারবো।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজমুল হুদা রনি জানান,৯৮ কিলোমিটারের জুড়ে বিস্তিন্ন হালদা।মুলত মা মাছ ডিম ছাড়ে ১৬ কিলোমিটার তার বেশির ভাগ হাটহাজারী এলাকায় ডিম ছাড়ে। গত বছরের তুলনায় এ বছর ডিম বেশী পাওয়ার আশা করছি।হালদা নদীতে ডিম ছাড়ার জন্য মার্চ থেকে মাছ নদীতে অবস্থান করছে। আশা করি, এবার মাছ রেকর্ড পরিমাণ ডিম ছাড়বে।

জেলা মৎস্য কার্যালয়ের তথ্য মতে, হালদার দুই পাড়ের রাউজান ও হাটহাজারী উপজেলার প্রায় ৬০০ জন ডিম সংগ্রহকারী রয়েছেন, যারা প্রতি মৌসুমে হালদা থেকে ডিম সংগ্রহ করেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা গবেষক ড. মঞ্জুরুল কিবরীয়া বলেন, প্রাকৃতিক ভাবে এপ্রিল থেকে জুন মাসে পূর্ণিমা যেকোন সময় বা আমবশ্যা পর্যন্ত বড় মাছ জো বজ্র বৃষ্টিতে ডিম ছাড়ে।এর মধ্যে তিনি জো চলে গেছে। ৪র্থ জো টি ২৪মে থেকে ২৮মে পর্যন্ত। এটি হবে পর্ণিমাতে। এই জোতে ডিম ছাড়ার সম্ভবনা আছে।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রহুল আমিন বলেন, প্রজনন মৌসুম সামনে রেখে মা-মাছ শিকারিরা তৎপর। তাই আমরা কঠোর অবস্থানে রয়েছি। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০২১ সালে মে পর্যন্ত ১৭৪টি অভিযান পরিচালনা করি। এ অভিযান একলক্ষ ১৫ হাজার ঘনফুট বালু,৩লক্ষ ২হাজার ৫শত মিটার জাল জব্দ করা হয়। ১৫টি বালু তোলার ড্রেজার,১টি ট্রাক্টর,সারে ৩কিলোমিটার বালু উত্তোলনের পাইপ, ৫৩টি ইন্জিন চালিত নৌকা ধংস ও ৬টি নৌকা জব্দ করা হয়। প্রায় ১লক্ষ ৬৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় এবং ৩জনকে কারাদন্ড প্রদান করা হয়।এছাড়াও আমাদের উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর যৌথ হালদা পরিবেশ রোধে উদ্দ্যেগেএশিয়া পেপার মিল ও ১শত মেগাওয়াট পাওয়ার পিকিং প্ল্যান কেন্দ্র বন্ধ করা হয়।
প্রতিদিন আমাদের অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য হালদা নদী থেকে ২০১৮ সালে ২২ হাজার কেজি এবং ২০১৯ সালে ১০ হাজার কেজি ডিম আহরণ করা হয়। আর ২০২০ সালে ২৫ হাজার কেজি ডিম সংগ্রহ করে রেকর্ড করেছে ডিম আহরণকারীরা

এই নিউজটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত,© এই সাইডের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি  
Design & Developed BY ThemeNeed.com